মাথার ত্বক ও চুলের যত্ন

    34


    মাথার শুষ্ক ত্বক যেমন একধরনের সমস্যা, তেমনি তৈলাক্ত ত্বকও একধরনের সমস্যা। এটি অস্বস্তিকরও বটে। মাথার ত্বক তৈলাক্ত হলে শ্যাম্পু করার কিছুক্ষণ পরেই চুল তেল চিটচিটে হয়ে যায়। এতে চুলের স্টাইলিংয়ে সমস্যা হয়। মাথার তৈলাক্ত ত্বকের কারণ হলো, চুলের গভীরে অয়েল গ্ল্যান্ড থেকে সেবাম উৎপন্ন হওয়া। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি সেবাম নিঃসৃত হলেই মাথার ত্বক ও চুল তৈলাক্ত হয়ে যায়।

    চুল তৈলাক্ত হওয়ার অনেক কারণ আছে। যেমন:

    • জেনেটিক কারণে বা চর্মরোগের কারণে সেবাম উৎপাদন বেড়ে যায়। ফলে মাথার ত্বক ও চুল তৈলাক্ত হতে শুরু করে।
    • সেবুরিক ডার্মাটাইটিস রোগ ও লাইফস্টাইলের কারণে মাথার ত্বক তৈলাক্ত হতে শুরু করে।
    • অতিরিক্ত ক্ষার ও রাসায়নিকযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহারের কারণে মাথার ত্বক শুকিয়ে যায়। ফলে ত্বক ময়েশ্চারাইজার হারায়। এই ঘাটতি পূরণের জন্য ত্বক সেবাম উৎপন্ন করা শুরু করে। এ কারণে মাথার ত্বক ও চুল তৈলাক্ত হয়ে যায়। 

    আমাদের দেশে যেহেতু গরম বেশি, তাই ঘাম বেশি হয়। এর সঙ্গে আছে ধুলাবালি। এগুলোর জন্য মাথার ত্বক ও চুল তৈলাক্ত হওয়ার সমস্যা বেশি দেখা দেয়। ধুলাবালি ও ঘাম চুলের গোড়ার পোর বন্ধ করে দেয় বলে চুল সহজে ময়লা হয়ে যায়। 

    যা করতে হবে

    • চুল পরিষ্কার রাখতে আপেল সিডার ভিনেগার, গ্রিন টি, শসা, আদাযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করুন।
    • তৈলাক্ত ত্বকের সঙ্গে খুশকি থাকলে কিটোকোনাজল, সেলেনিয়াম সালফাইড কিংবা জিঙ্কযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে।
    • চুলের গোড়া থেকে এক দেড় ইঞ্চি ওপরে কন্ডিশনার লাগাতে হবে।
    • অ্যালোভেরা, শসা, টি-ট্রি অয়েল আছে এমন কন্ডিশনার ও হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।
    • মাথার ত্বক বেশি তৈলাক্ত হলে ও চুলের গোড়ায় ফুসকুড়ি থাকলে তেল ব্যবহারের ক্ষেত্রে সাবধান থাকতে হবে। এ ক্ষেত্রে মাথার ত্বকে তেল মালিশ না করে শুধু চুলে তেল লাগাতে হবে।
    • চুল আঁচড়ানোর ব্যাপারে সাবধান থাকতে হবে। তোয়ালে, চিরুনি, বালিশের কভার ও চুলে ব্যবহৃত সরঞ্জাম পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

    চুলে সেবাম উৎপাদন বন্ধ এবং চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী সাপ্লিমেন্ট, প্রোবায়োটিকস, ভিটামিন ই ক্যাপসুল ইত্যাদি গ্রহণ করতে পারেন।
    মাথার ত্বকে প্রাকৃতিকভাবে যে নির্দিষ্ট পরিমাণের তেল, অর্থাৎ সেবাম উৎপাদন হয়, তা চুলের জন্য ভালো। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি সেবাম উৎপাদন হলে চুল তৈলাক্ত হয়ে যায় এবং প্রয়োজনের তুলনায় কম সেবাম উৎপাদন হলে মাথার ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। 

    চুলের যত্ন ও টিপস সম্পর্কিত জানতে – এখানে ক্লিক করুন

    লেখক: চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ, শিওর সেল মেডিকেল, ঢাকা

    স্বাস্থ্য সম্পর্কিত আরও পড়ুন:





    Source link