ক্রেডিট কার্ড দিয়ে অনলাইনে কেনাকাটা করার নিয়ম – Banglatech24.com

45


অনলাইনে শপিং করার ক্ষেত্রে ক্রেডিট কার্ড সবচেয়ে প্রচলিত মাধ্যম। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে বেশ সহজে ও নিরাপদে অনলাইন পেমেন্ট করা যায় দেশী-বিদেশী অসংখ্য ওয়েবসাইটে। এই পোস্টে জানবেন ক্রেডিট কার্ড দিয়ে অনলাইনে কিভাবে কেনাকাটা করে সে সম্পর্কে বিস্তারিত।

ক্রেডিট কার্ড দ্বারা অনলাইনে কেনাকাটার নিয়ম

মনে রাখবেন, আপনি যদি বাংলাদেশের বাইরের কোনো সাইট থেকে ডলারে কিছু কিনতে চান সেক্ষেত্রে আপনার ডুয়াল কারেন্সি ক্রেডিট কার্ড দরকার। অর্থাৎ, আপনার কার্ডে টাকার পাশাপাশি ডলার কারেন্সি থাকতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনার কার্ডে আগে থেকেই পাসপোর্ট দ্বারা ডলার এনডোর্স করিয়ে নিতে হবে। অন্যথায় আপনি আপনার কার্ড দিয়ে ডলার খরচ করতে পারবেন না। কার্ডে ডলার পেতে আপনার ব্যাংকে যোগাযোগ করুন।

চলুন ধাপে ধাপে জেনে নেওয়া যাক অনলাইনে কোনো ই-কমার্স ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে কেনাকাটা করতে হয়।

  • প্রথমত ওয়েবসাইটের ইউআরএল এর শুরুতে “https:” রয়েছে কিনা তা চেক করুন। ওয়েবসাইটটি যদি HTTPS প্রোটোকল ব্যবহার করে থাকে তবে ইউআরএল বারে একটি প্যাডলক আইকন ও দেখতে পাবেন। HTTPS থাকার মানে হলো আপনার পিসি থেকে উক্ত সাইটের সার্ভারে ডাটা যাওয়ার পথে অন্য কেউ আপনার ডাটা দেখতে পারবেনা। HTTPS এর উপকারিতা এইটুকুই। ইকমার্স সাইট যদি প্রতারণা করে তাহলে HTTPS সেটা ঠেকাতে পারবেনা।
  • এরপর উক্ত ই-কমার্স ওয়েবসাইট থেকে আপনার পছন্দের পণ্য কার্ট এ এড করুন।
  • সিলেক্ট করা প্রোডাক্ট চেকআউট করতে স্ক্রিনে থাকা শপিং আইকন বা Checkout অপশনে ক্লিক করে চেকআউট পেজে প্রবেশ করুন যেখানে আপনার বিলিং এর তথ্য প্রদান করতে হবে।
  • এরপর আপনার নাম, ঠিকানা, ফোন নাম্বার ও ইমেইল এড্রেস প্রদান করুন নির্দিষ্ট বক্সে। অনেক ওয়েবসাইটে কেনাকাটা সম্পন্ন করতে একাউন্ট তৈরীর প্রয়োজন হতে পারে যা ইউজারনেম ও পাসওয়ার্ড লিখে বেশ সহজে খোলা যায়।
  • পেমেন্ট মেথড হিসেবে “Credit Card” সিলেক্ট করুন। এছাড়াও Paypal, Bank Transfers ইত্যাদি অপশন পাবেন পেমেন্ট মেথড হিসেবে। এছাড়া আপনার ক্রেডিট কার্ড প্রোভাইডার ভিসা, মাস্টারকার্ড নাকি আমেরিকান এক্সপ্রেস এর সে বিষয়টিও সিলেক্ট করুন।
  • এবার আপনার ক্রেডিট কার্ডের তথ্য সঠিকভাবে প্রদান করুন। ক্রেডিট কার্ডে থাকা নাম, ১৬ডিজিটের কার্ড নাম্বার, মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ ও কার্ডের ব্যাকে থাকা তিন ডিজিটের সিকিউরিটি কোড লিখুন। আপনার কার্ড যদি এমেক্স হয় তাহলে সিকিউরিটি কোড সামনের দিকে থাকতে পারে।
  • এরপর পেমেন্ট কনফার্ম করতে এগিয়ে যান। কখনো পেমেন্ট সম্পন্ন করার সময় কনফার্ম অপশন দুইবার ট্যাপ করা থেকে বিরত থাকুন, এতে অনাকাঙ্খিত কোনো পারচেজ থেকে বেঁচে থাকতে পারবেন।
  • ক্রেডিট কার্ডের বাড়তি সুরক্ষার জন্য রয়েছে Verified by Visa, Mastercard SecureCode ও American Express’s Safekey ইত্যাদি সেবার জন্য সাইন-আপ করতে পারবেন। এসব বাড়তি সুরক্ষা মূলত আপনার ক্রেডিট কার্ডে লেনদেনের সময় ওটিপি’র প্রয়োজন যোগ করে ও হ্যাকিং থেকে কার্ডকে রক্ষা করে।

অনলাইন পারচেজ সম্পন্ন হলে পেমেন্ট কনফার্মেশন এর একটি কপি আপনার কাছে রাখুন। বেশিরভাগ অনলাইন স্টোর আপনার রিসিপ্ট ইমেইল করে দিবে। এই তথ্য দ্বারা ক্রেডিট কার্ডের খরচের সহজ হিসাব রাখা যায়।

উল্লেখিত উপায়ে যেকোনো অনলাইন স্টোরে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে কেনাকাটা করতে পারবেন।

অনলাইন শপিং এর জন্য ক্রেডিট কার্ড কি নিরাপদ?

অনলাইন শপিংকে নিরাপদ করতে ক্রেডিট কার্ড কোম্পানিওগুলো অনেক ধরনের সিকিউরিটি প্রোটোকল ব্যবহার করে, এমন কিছু নিরাপত্তা ব্যবস্থা হলোঃ

  • ফ্রড মনিটরিং সার্ভিসঃ সন্দেহজনক একাউন্ট একটিভিটি থাকলে ক্রেডিট কার্ড প্রোভাইডার আপনার সাথে যোগাযোগ করবে। কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত বা আনঅথোরাইজড লেনদেন রুখে দিতে একাউন্ট টেম্পরারি লক করে দেওয়া হয়।
  • ওয়ান-টাইম পাসওয়ার্ডঃ ওটিপি বর্তমানে সকল ক্রেডিট কার্ডে ব্যবহার হয়ে থাকে। প্রতিবার অনলাইন শপিংয়ের ক্ষেত্রে মোবাইলে একটি কোড আসবে যা প্রদান করে লেনদেন সম্পন্ন করতে হয়।
  • কোনো ধরনের প্রতারণার শিকার হলে অনেক ক্ষেত্রে তার দায়ভার বহন করে থাকে ক্রেডিট কার্ড ইস্যুয়ার।
  • ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে লেনদেনে যেকোনো সমস্যা হলে তা তৎক্ষনাৎ কাস্টমার সাপোর্ট থেকে সমাধান করে নেওয়া যাবে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ক্রেডিট কার্ড দিয়ে অনলাইনে কেনাকাটা করার নিয়ম

👉 অনলাইনে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে যেসব সাবধানতা আবশ্যক

অনলাইন পেমেন্টের সময় যেসব বিষয় খেয়াল রাখা জরুরি

ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো মাথায় রাখতে ভুলবেন না।

  • ক্রেডিট কার্ডের ডিটেইলস ব্রাউজারে সেভ করে রাখলে তা হয়ত পরে সহজে ব্যবহার করা যাবে, কিন্তু একাউন্ট হ্যাক হয়ে গেলে আপনার ক্রেডিট কার্ডের তথ্য চুরি হয়ে যেতে পারে। তাই ব্রাউজারে আপনার ক্রেডিট কার্ডের তথ্য সেভ করা থেকে বিরত থাকুন।
  • পাবলিক কম্পিউটার থেকে কোনো ধরনের অনলাইন শপিং করতে চাইলে ইনকগনিটো মোড ব্যবহার করুন। তবে ইনকগনিটো মোডেরও সমস্যা আছে। তাই এটা ব্যবহার করে কোনো তথ্য পিসিতে সেইভ করা থেকে বিরত থাকুন।
  • কোনো কারণে আপনার পেমেন্ট প্রসেস না হলে পরবর্তীতে শপিং কার্টে সেভ থাকা প্রোডাক্টগুলো কিনতে পারবেন।
  • কারেন্সি কনভার্ট এর ক্ষেত্রে অধিকাংশ ক্রেডিট কার্ডে ২% থেকে ৪% ফি প্রযোজ্য হয়। আপনি যদি নিয়মিত ইন্টারন্যাশনাল রিটেইলারের কাছ থেকে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে কেনাকাটা করতে চান, তবে ফরেইন ট্রানজেকশন ফি কম বা নেই এমন কার্ড বেছে নিন।

আপনি কি ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে কেনাকাটা করেন? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

👉 ভিডিওঃ ক্রেডিট কার্ডের সুবিধা ও অসুবিধা জানুন

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

!function(f,b,e,v,n,t,s)
{if(f.fbq)return;n=f.fbq=function(){n.callMethod?
n.callMethod.apply(n,arguments):n.queue.push(arguments)};
if(!f._fbq)f._fbq=n;n.push=n;n.loaded=!0;n.version=’2.0′;
n.queue=[];t=b.createElement(e);t.async=!0;
t.src=v;s=b.getElementsByTagName(e)[0];
s.parentNode.insertBefore(t,s)}(window, document,’script’,
‘https://connect.facebook.net/en_US/fbevents.js’);
fbq(‘init’, ‘2233201686710024’);
fbq(‘track’, ‘PageView’);



Source link