বাংলাদেশ-ইইউ প্রথম রাজনৈতিক সংলাপ স্থগিত করল ব্রাসেলস

14


স্থগিত হয়েছে বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রথম রাজনৈতিক সংলাপ। ২৮ জুন ঢাকা ও ব্রাসেলসের মধ্যে এ সংলাপটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ইইউয়ের পক্ষ থেকে সংলাপটি স্থগিত করা হয়। আগামী নভেম্বর পর্যন্ত সংলাপের জন্য সময় দিতে পারছে না ইইউ। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

সংলাপ স্থগিত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পশ্চিম ইউরোপ ও ইইউ অনুবিভাগের এক কর্মকর্তা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে আজকের পত্রিকাকে তিনি বলেন, ‘বৈঠকটি এ সপ্তাহে হচ্ছে না। পরবর্তী তারিখ সুবিধাজনক সময়ে নির্ধারণ করা হবে।’ 

সূত্রে জানা গেছে, ২৮ জুন প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে রাজনৈতিক সংলাপ হওয়ার কথা ছিল। সংলাপে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেওয়ার কথা ছিল পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহ্‌রিয়ার আলমের এবং ইইউয়ের পক্ষে ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল এনরিকে মোরার। 

ইইউয়ের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল এনরিকে মোরার বাংলাদেশের সঙ্গে সংলাপ শেষে ভারতের সঙ্গে রাজনৈতিক সংলাপে অংশ নেওয়ার কথা ছিল। তবে সে সংলাপও স্থগিত করা হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, ইরানের তেহরানে একটি জরুরি বৈঠকের কারণে দক্ষিণ এশিয়ার এ সংলাপ দুটি স্থগিত করেছে ইইউ। পরমাণু চুক্তি নিয়ে ইইউ ও ইরানের মধ্যে থেমে যাওয়া আলোচনা আবার শুরু করতে তেহরান সফরে রয়েছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র ও নিরাপত্তা নীতিবিষয়ক হাই রিপ্রেজেনটেটিভ ও ইউরোপিয়ান কমিশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট জোসেফ বোরেল। তাঁর সঙ্গে তেহরান সফরে রয়েছেন এনরিকে মোরা।

জানা গেছে, ২০২১ সালের অক্টোবরে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন ব্রাসেলস সফরের সময় ইইউয়ের সঙ্গে রাজনৈতিক সংলাপের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়। বর্তমানে বাংলাদেশ ও ইইউয়ের মধ্যে বছরে দুটি বৈঠক হয়। একটি হচ্ছে জয়েন্ট কমিশন, অপরটি কূটনৈতিক কনসালটেশন।





Source link