নিয়োগের জন্য নির্বাচিত ১১ হাজার ৭৬৯ শিক্ষক

43


বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১৫ হাজারের বেশি শিক্ষক নিয়োগের বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তির ফল ও তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে যোগদান না করা পদগুলোতে সুপারিশের জন্য ১১ হাজার ৭৬৯ জন নির্বাচিত হয়েছেন। আজ রোববার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে নির্বাচিত প্রার্থীরা এসএমএস পাওয়া শুরু করেছেন। দুপুরেই নির্বাচিত প্রার্থীদের তালিকা নির্ধারিত ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। এসব প্রার্থীকে পুলিশ ভেরিফিকেশনের পর চূড়ান্ত সুপারিশ করা হবে। 

এনটিআরসিএ জানিয়েছে, প্রার্থীরা ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে ফল দেখতে পারবেন। যাঁরা নির্বাচিত হয়েছেন, আগামী ৩০ জুনের মধ্যে তাঁদের ভি-রোল ফরম পাঠাতে হবে। 

এনটিআরসিএ সূত্রে জানা গেছে, বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষক পদে নিয়োগে সুপারিশ পাচ্ছেন ৪ হাজার ৭৫২ জন। আর তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে যোগদান না করা পদগুলোতে সুপারিশ পাচ্ছেন ৭ হাজার ১৭ জন প্রার্থী। পুলিশ ভেরিফিকেশনের পর প্রার্থীদের চূড়ান্ত নিয়োগ সুপারিশ করা হবে। 

প্রার্থীদের চার কপি ছবি, জীবনবৃত্তান্ত ফরম বা ভি রোল ফরম পূরণ করে এনটিআরসিএ কার্যালয়ে সরাসরি বা ডাকযোগে ৩০ জুন বিকেল ৫টার মধ্যে পাঠাতে হবে। পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করতে হবে। 

ভি-রোল জমা দেওয়ার সময় খামের ওপর নিবন্ধন পরীক্ষার ব্যাচ, রোল নম্বর, নিজ জেলা ও মোবাইল নম্বর আবশ্যিকভাবে লিখতে হবে বলে এনটিআরসিএ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে। আর নির্বাচিত প্রার্থীদের মধ্যে যাঁরা তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির আওতায় নিয়োগের সুপারিশ পাচ্ছেন, তাঁদের নিয়োগের সুপারিশপত্রের কপি ডাউনলোড করতে হবে। ওই সব প্রার্থীর ভি-আর ফরম দাখিলের প্রয়োজন হবে না। 

এনটিআরসিএর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা জানান, মোট সাড়ে ২২ হাজার শিক্ষক পদে প্রার্থীদের নিয়োগের প্রাথমিক সুপারিশের পরিকল্পনা থাকলেও বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তির সব পদে আবেদন পড়েনি। এজন্য সব পদে নিয়োগ সুপারিশ করা সম্ভব হবে না। 

এর আগে রোববার সকালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানান, বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তিতে ৮ হাজার ৩৫৯ জনের আবেদন পাওয়া গেছে। এর মধ্য থেকে মেধা ও চাহিদার ভিত্তিতে ৪ হাজার ৭৫২ জন নিয়োগের সুপারিশ পাচ্ছেন। এর ৪ হাজার ১৮৫টি পদ এমপিও এবং ৫৬৭টি পদ নন এমপিও। নতুন নিয়োগ সুপারিশের জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের ২ হাজার ৫০৪ জন সাধারণ ধারার স্কুল-কলেজে এবং ২ হাজার ২৪৮ জন মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশ পাচ্ছেন। 

মন্ত্রী আরও জানান, তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে যোগদান না করা ৭ হাজার ১৭টি পদে আবেদন করা পরবর্তী প্রার্থীদের নিয়োগের সুপারিশ করা হচ্ছে। এসব পদের ৬ হাজার ২০৫টি এমপিও এবং ৮১২টি নন এমপিও। দ্বিতীয় ধাপের সুপারিশের জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের ৪ হাজার ৫৩৯ জন সাধারণ ধারার স্কুল-কলেজে এবং ২ হাজার ৪৭৮ জন মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সুপারিশ পাচ্ছেন। মোট নিয়োগ সুপারিশের জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের মধ্যে পুরুষ ৭ হাজার ৭০৪ জন এবং নারী ৪ হাজার ৬৫ জন। 

গত ফেব্রুয়ারিতে বিশেষ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। এই গণবিজ্ঞপ্তিতে ১৫ হাজারের বেশি পদে ৮ থেকে ২২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন নেওয়া হয়।





Source link