নাশকতার তথ্য নেই, সময় নিয়ে ঈদগাহে আসাতে বলল র‍্যাব

19


নিরাপত্তা জনিত কারণে রাজধানীর জাতীয় ঈদগাহসহ ঈদের জামাতে সময় নিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়েছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। আজ শনিবার সকালে জাতীয় ঈদগাহের সার্বিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের পর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাহিনীটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) কর্নেল মো. কামরুল হাসান এ অনুরোধ জানান। 

ঈদগাহ ময়দানে সময় নিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘হাতে সময় নিয়ে এলে আমাদের সুবিধা হয়। কারণ এখানে অনেক মানুষের সমাগম হয়, এর পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঠিক রাখতে গেলে কিছুটা দেরি অনেক সময় হয়ে যায়। লম্বা লাইনের সৃষ্টি হয়। এ অবস্থা এড়াতে আমাদের অনুরোধ থাকবে, হাতে সময় নিয়ে আসবেন।’ এ সময় তিনি আরও জানিয়েছেন, রাজধানীসহ অন্যান্য ঈদ জামাতগুলোতে এখন পর্যন্ত নাশকতার কোনো তথ্য নেই। 

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ উদ্‌যাপনের অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ঈদকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দেশব্যাপী গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। ঈদগাহসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বোম ডিস্পোজাল ইউনিট ও ডগ স্কোয়াড দ্বারা সুইপিং সম্পন্ন করা হবে।’ 

এছাড়াও সারা দেশে র‍্যাবের কন্ট্রোল রুম, স্ট্রাইকিং রিজার্ভ, ফুট ও মোবাইল পেট্রল, ভেহিক্যাল স্ক্যানার, অবজারভেশন পোস্ট, চেক পোস্ট এবং সিসিটিভি মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

নাশকতার গোয়েন্দা তথ্য নেই জানিয়ে কামরুল বলেন, ‘সাইবার জগতে আমরা যথেষ্ট নজরদারি বজায় রাখি। অনলাইন থেকে তথ্য নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। আমাদের প্রতিটি ইউনিট প্রস্তুত থাকে, এখনো সেটি আছে। গোয়েন্দা তথ্য ও সাইবার মনিটরিংয়ে আমরা এখন পর্যন্ত নাশকতা বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার কোন অগ্রিম তথ্য এখনো আমাদের কাছে নেই। আমরা সব সময় প্রস্তুতিমূলক সর্বোচ্চ সতর্ক ব্যবস্থা গ্রহণ করি এবং আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা সর্বোচ্চ অবস্থায় থাকে।’ 

জাতীয় ঈদগাহে পর্যাপ্ত ইউনিফর্ম ও সাদা পোশাকে টহল থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘জাতীয় ঈদগাহসহ আমরা দেশের সব মেট্রোপলিটন শহর, জেলা শহর ও উপজেলা পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ জামাতগুলো কাভার করবো। সেখানে স্পেশাল ফোর্স, ডগ স্কোয়াড, বোম ডিসপোজাল ইউনিট, রিজার্ভ ফোর্স, সিসিটিভি কভারেজ থাকবে। এয়ার উইংয়ের হেলিকপ্টার সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রয়েছে।’





Source link