১০ জনের দেয়াল তুলে বাংলাদেশকে ঠেকাল মালয়েশিয়া 

19


খেলার ধরন পাল্টাবে মালয়েশিয়া, ধারণাটা ভালোভাবেই মাথায় রেখে মাঠে নেমেছিলেন বাংলাদেশ নারী দলের ফুটবলাররা। তবে কৌশলটা কী আক্রমণাত্মক নাকি রক্ষণাত্মক তা নিয়েই ছিল প্রশ্ন। 

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে আজ আরেকটি জয় দেখার আশায় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের খেলা দেখতে এসেছিলেন সাত হাজারের মতো দর্শক। ম্যাচ শুরুর বাঁশি বাজতেই মালয়েশিয়ান মেয়েদের অতি রক্ষণাত্মক ফুটবল হতাশ করল দর্শকদের। হতাশ হতে হয়েছে ফুটবলারদেরও। সাবিনা খাতুনদের একের পর এক আক্রমণ আটকে গেল মালয়েশিয়ানদের মানব রক্ষণে। প্রথম ম্যাচে ৬-০ গোলে বড় জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের ফল হলো হতাশার গোলশূন্য ড্র। 

চোট থাকার পরও সিরাত জাহান স্বপ্নাকে দলে রেখেই আগের ম্যাচের অপরিবর্তিত একাদশকেই ম্যাচে খেলিয়েছেন বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। অপরদিকে আগের ম্যাচের চার ফুটবলারকে সাইডবেঞ্চে বসিয়ে দল সাজান মালয়েশিয়ান কোচ জ্যাকব জোসেফ। 

আগের ম্যাচে বড় হারের পর শুরু থেকেই সতর্ক হয়ে খেলেছে মালয়েশিয়া। ম্যাচের শুরু থেকে প্রায় পুরোটা সময় নিজেদের অর্ধে ১০ ফুটবলারকে নিজেদের অর্ধে রেখেছে দলটি। প্রতিপক্ষের খোলসবন্দী ফুটবলের সঙ্গে নিজেদের সুযোগ কাজে না লাগাতে পারাটাও হতাশ করবে সাবিনাদের। 

 ৮ মিনিটে ম্যাচে প্রথম সুযোগ পায় বাংলাদেশ। বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া আঁখি খাতুনের বাঁ পায়ের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান মালয়েশিয়ান গোলরক্ষক। ১১ মিনিটে দারুণ এক ড্রিবলিংয়ে মালয়েশিয়ান এক ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে মাসুরা পারভিনকে ক্রস করেছিলেন মণিকা চাকমা। কেবল গোলরক্ষককে একা পেয়েও মাসুরার ভলি চলে গেছে পোস্টের ওপর দিয়ে। 

 ১৭ মিনিটে বাংলাদেশের ভালো একটি আক্রমণ ঠেকিয়ে দেন মালয়েশিয়ান গোলরক্ষক নুরুল আজুরিন। ক্ষিপ্র গতিতে মালয়েশিয়ার বক্সের বাইরে বল পায়ে এগিয়ে যান মণিকা চাকমা। বক্সের বাইরে বল কাট ব্যাক করেন সাবিনা খাতুনের দিকে। ভালো জোরের সঙ্গেই শট নিয়েছিলেন সাবিনা কিন্তু ফিস্ট করে সেই শট ঠেকান মালয়েশিয়ান গোলরক্ষক। 

নিজেদের মধ্যে বল দেওয়া-নেওয়া করে ৪০ মিনিটে আবারও বাংলাদেশের আক্রমণ। তবে সাবিনার শট সোজা আটকে গেছে মালয়েশিয়ান গোলরক্ষকের গ্লাভসে। 

দ্বিতীয়ার্ধে আরও রক্ষণাত্মক মালয়েশিয়া। এই অর্ধের প্রায় পুরোটা সময় বাংলাদেশ মালয়েশিয়ার অর্ধে ঝাঁপাল, আক্রমণ করে গেল একের পর এক। কিন্তু বক্সের ভেতর ১০ ফুটবলারের অভেদ্য এক দেয়াল গড়ে সাবিনাদের ঠেকিয়ে গেলেন মালয়েশিয়ান ফুটবলাররা। ৭১ মিনিটে মণিকার কর্নারে জটলার মধ্যে বল পেয়ে যান মারিয়া মান্দা। এই মিডফিল্ডারের শট বাইরে যাওয়ার আগে পা ছোঁয়ানোর চেষ্টা করেও পারেনি মাসুরা পারভিন। ৮৫ মিনিটে কৃষ্ণারাণী সরকারের জোরালো এক শট বাংলাদেশ দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেতে দেননি মালয়েশিয়ান গোলরক্ষক নুরুল আজুরিন। অতিরিক্ত সময়ে মণিকা চাকমার কর্নার থেকে আঁখি খাতুনের হেডটাও খুঁজে পায়নি জাল।





Source link