স্বামী-স্ত্রী দুজনকে একসঙ্গে আম্পায়ারিং করতে এবারই প্রথম দেখল বিশ্ব ক্রিকেট 

30


বিশ্ব ক্রিকেট নতুন ইতিহাসের সাক্ষী হলো। একই পরিবারের সদস্যদের একসঙ্গে ম্যাচ খেলার রেকর্ড আছে অনেক। কিন্তু ম্যাচ পরিচালনা করেছেন একসঙ্গে এমন উদাহরণ নেই। এবার তেমনি এক রেকর্ড হয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) স্বীকৃত টুর্নামেন্ট রেচেল হেহো ফ্লিন্ট ট্রফিতে।

শুধু ক্রিকেটেই নয়, কোনো পেশাদার খেলাতে নেই এমন কীর্তি। আরও মজার ব্যাপার হলো আম্পায়ার দুজন সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। ইংল্যান্ডের ঘরোয়া টুর্নামেন্টে আম্পায়ারিং করা দুজনের নাম — নাঈম আশরাফ ও জাসমিন নাঈম।
এমন কীর্তির সুযোগ পেয়ে আশরাফ-জাসমিন দম্পতি খুশি। জাসমিন বলেছেন,‘ ল্যাঙ্কারশায়ার ও গ্রেটার ম্যানচেস্টারের লিগে একসঙ্গে অনেক ম্যাচ পরিচালনা করেছি। তখন কেউ জানত না আমরা বিবাহিত। পেশাদার ক্রিকেটের মতো বড় মঞ্চে সুযোগ পেয়ে আমরা সম্মানিত।’

প্রথম দিকে এ পেশায় আসার কোনো ইচ্ছাই ছিল না জাসমিনের। আম্পায়ারিংয়ের বিষয়ে তিনি বলেছেন, ‘আশরাফ হাতের ব্যথায় স্টেজ থ্রি কোর্সের নোট লিখতে পারছিল না। সেগুলো লিখতে গিয়ে অনেক কিছু শিখেছিলাম। স্বামীর জন্যই আম্পায়ার হতে পেরেছি।’

আশরাফ পাকিস্তান জাতীয় দলের হয়ে দুইটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। তিনি খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার দীর্ঘায়িত করতে পারেননি চোটের কারণে। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ এই আম্পায়ার বলেছেন,‘ এটি সত্যি গর্বের বিষয়। আমি ক্রিকেটকে কিছু ফিরিয়ে দিতে এ পেশায় এসেছি । গতকাল, শনিবার আশরাফ-জাসমিন দম্পতি লাইটনিং ও ওয়েস্টার্ন স্ট্রমের ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব ছিলেন।





Source link