স্ত্রীকে কাঁদিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন ভূমিকায় রুনি

10


পরিবারে সচ্ছলতা ফেরাতে কিংবা চাকরির সুবাদে কত মানুষকেই তো বিদেশে পাড়ি জমাতে হয়। ওয়েন রুনিও বড় অঙ্কের প্রস্তাব পেয়ে ‘না’ বলতে পারেননি। পরিবার ছেড়ে চলে গেছেন মার্কিন মুলুকে।

যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ সকারের দল ডিসি ইউনাইটেডের প্রধান কোচ হচ্ছেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক রুনি। আজকালের মধ্যেই ক্লাবটির সঙ্গে চুক্তি হয়ে যাওয়ার কথা তাঁর।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সান বলছে, বছরে ১১৭ কোটি টাকা পারিশ্রমিক পাবেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক ফরোয়ার্ড রুনি। ৩৬ বছর বয়সী তারকার নতুন চাকরির খবরে খুশি হওয়ার কথা পরিবারের। তা নয়; উল্টো বেদনাহত তাঁর স্ত্রী কুলেন রুনি। স্বামীর যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার খবর শুনে কেঁদেছেন তিনি। ‘ঘরকাতুরে’ কুলেন কোনোভাবেই রুনির সঙ্গে যেতে রাজি নন। চার সন্তান নিয়ে থেকে যেতে চান ইংল্যান্ডেই। 

সন্তানের নিয়ে ইংল্যান্ডেই থাকবেন রুনির স্ত্রী কুলেন। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

ডিসি ইউনাইটেডের সঙ্গে রুনির সম্পর্কটা পুরোনো। ২০১৮ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত খেলোয়াড় হিসেবে ক্লাবটিতে ছিলেন তিনি। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে করেছেন ২৫ গোল। সে সময় পরিবারকে নিয়েই ওয়াশিংটন ডিসিতে থাকতেন তিনি। তখনই কুলেনের বাজে অভিজ্ঞতা হয়েছে। প্রায় প্রতি রাতেই দেশে ফেরার জন্য কাঁদতেন তিনি। 

আবার যখন সেই যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা উঠেছে, তখনো কেঁদেছেন কুলেন। বলেছেন, ‘শহরটি (ওয়াশিংটন ডিসি) ঘুরে বেড়ানোর জন্য ভালো। বসবাসের জন্য নয়। যুক্তরাজ্যের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্র অনেক পিছিয়ে। আমার চার সন্তান স্কুলে যায়। ওরা এখানে থাকতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে।’ 

ইংল্যান্ডের তৃতীয় বিভাগের ক্লাব ডার্বি কাউন্টির প্রধান কোচের চাকরি ছাড়ার পর থেকেই রুনির সঙ্গে যোগাযোগ করে আসছিল ডিসি। সাবেক ক্লাবকে কোচিং করানো নিয়ে কিছুটা দ্বিধায় থাকলেও শেষ পর্যন্ত প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন।





Source link