সতীর্থের মায়ের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়াননি পিকে

16


বার্সেলোনা তারকা জেরার্ড পিকে ও পপসম্রাজ্ঞী শাকিরা বিশ্বের সবচেয়ে রোমান্টিক ও শক্তিমান জুটিগুলোর একটি। ভালোবাসার ফসল হিসেবে তাঁদের ঘরে আছে দুটি সন্তান। তবে সবাইকে হতাশ করে সম্পর্ক ভাঙার দ্বারপ্রান্তে তাঁরা।

দায়টা অবশ্য পিকেরই। শাকিরার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন তিনি। অন্য নারীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ অবস্থায় শাকিরার কাছে হাতেনাতে ধরার পড়ছেন ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী তারকা। এ ঘটনায় দুই সন্তান নিয়ে ইবিজা দ্বীপে চলে গেছেন শাকিরা। এক সপ্তাহ হলো আলাদা থাকছেন তাঁরা।

পরকীয়ার ঘটনা ছড়িয়ে পড়তেই অবশ্য জনমনে প্রশ্ন ওঠে, শাকিরার মতো সুন্দরীকে ছেড়ে কার প্রেমে মজেছেন পিকে? 

গতকাল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নিয়ে গুজবও রটে। বেশ কয়েকটি অ্যাকাউন্ট থেকে দাবি করা হয়, পিকেকে শাকিরার কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া নারী আর কেউ নন; তাঁরই বার্সা সতীর্থ পাবলো গাভির মা। 

৩৫ বছর বয়সী পিকের চেয়ে দশ বছরের বড় শাকিরা। বার্সার ‘বিস্ময় বালক’ গাভির মায়েরও বয়স ৪৫ বছর। পিকের জন্য তাই শাকিরার সমবয়সী নারীর প্রেমে পড়া অবাস্তব কিছু নয়। 

তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়ানো গুজব উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনাভিত্তিক দৈনিক ‘এল পেরিওদিকো’। পত্রিকাটির দুই সাংবাদিক লোরেনা ভাজকেজ ও লরা ফা অনুসন্ধান চালিয়ে নিশ্চিত করেছেন যে, পিকে যে নারীর সঙ্গে পরকীয়া করছেন তিনি গাভির মা নন; বরং ২০ বছর বয়সী এক স্বর্ণকেশী। পড়ালেখার পাশাপাশি অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা হিসেবে কাজ করেন পিকের নয়া প্রেমিকা। পিকের সঙ্গে তাঁকে বেশ কয়েকবার ঘুরে বেড়াতেও দেখেছেন শাকিরা। তবে তরুণীর নাম এখনো প্রকাশ করেনি পত্রিকাটি।

গাভির মা হোক কিংবা স্বর্ণকেশী তরুণী; তাতে অবশ্য শাকিরার কিচ্ছু যায়-আসে না। কলম্বিয়ান পপ তারকা যে পিকের সঙ্গে এক ছাদের নিচে আর থাকতে চান না, সেটি এক রকম নিশ্চিত।





Source link