ভারতের নেতৃত্বের পরীক্ষা চলছেই, এবার অধিনায়ক ধাওয়ান

14


ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) অধিনায়কত্ব নিয়ে একের পর এক পরীক্ষা চালিয়েই যাচ্ছে। 

এ বছরের প্রথম ছয় মাসেই ৬ জনকে নেতৃত্বভার দিয়েছে সৌরভ গাঙ্গুলীর নিয়ন্ত্রণাধীন বোর্ড। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে শিখর ধাওয়ানকে অধিনায়ক করে বিসিসিআইয়ের দল পাঠানোর ঘোষণায় সেটি বেড়ে দাঁড়াল সাতে, যা ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথম। 

বিসিসিআই অবশ্য ইচ্ছা করে এমনটি করেনি। কিছু পরিস্থিতির কারণে বার বার অধিনায়ক বদলাতে বাধ্য হয়েছে। ক্রিকেটারদের চোট, বিশ্রাম আর করোনাকালে কাছাকাছি সময়ে ভিন্ন দেশে সিরিজ হওয়াতে এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। এটি অবশ্য তাঁদের জন্য ‘শাপে বর’ হয়েছে। এই সুযোগে ভারত যে তাদের গবেষণাগারে ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব গড়ে তুলতে পারছে। সঙ্গে পাইপলাইনের গভীরতাও যাচাই করে দেখতে পারছে। 

ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে এবারের উইন্ডিজ সফর শুরু করবে ভারত। সিরিজে ধাওয়ানের ডেপুটি করা হয়েছে রবীন্দ্র জাদেজাকে। ওপেনার ধাওয়ান গত বছর শ্রীলঙ্কা সফরেও ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। বিসিসিআই নিয়মিত অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে বিশ্রাম দেওয়াতেই আরেকবার সুযোগ পেয়েছেন ধাওয়ান। 

রোহিত ছাড়াও বিশ্রামে রাখা হয়েছে বিরাট কোহলি, রোহিত ঋষভ পন্ত, জসপ্রীত বুমরা, ভুবনেশ্বর কুমারকে, হার্দিক পান্ডিকে। চোটের কারণে নেই লোকেশ রাহুল। তাঁদের অনুপস্থিতিতে তরুণ ক্রিকেটারেরা সুযোগ পেয়েছেন ক্যারিবিয়ান সফরে। 

দুই বছর পর শুবমান গিল ওয়ানডে দলে সুযোগ পেয়েছেন। আর সঞ্জু স্যামসন দলে ফিরেছেন প্রায় এক বছর পর। টি-টোয়েন্টিতে রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও আবেশ খানের অভিষেক হলেও এখনো ওয়ানডের স্বাদ পাওয়া হয়নি। তাঁরা দুজনই আছেন ১৬ সদস্যের দলে। 

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটি ২২ জুলাই। দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওয়ানডে হবে ২৪ ও ২৭ জুলাই। সব ম্যাচ হবে ত্রিনিদাদের পোর্ট অব স্পেনে। 

ভারতীয় দল: শিখর ধাওয়ান (অধিনায়ক), রবীন্দ্র জাদেজা (সহ-অধিনায়ক), রুতুরাজ গায়কোয়াড়, শুবমান গিল, দীপক হুদা, সূর্যকুমার যাদব, শ্রেয়াস আইয়ার, ঈশান কিষাণ (উইকেটরক্ষক), সঞ্জু স্যামসন (উইকেটরক্ষক), শার্দুল ঠাকুর, যুজবেন্দ্র চাহাল, অক্ষর প্যাটেল, আবেশ খান, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ, মোহাম্মদ সিরাজ ও আর্শদীপ সিং।





Source link