প্রশিক্ষণ নিতে রোনালদোর দেশে যাচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের রানী

29


ফুটবলে উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য পর্তুগালে যাচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ের মেয়ে কাকলী আক্তার রানী। বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে (অনূর্ধ্ব-১৭) রানী দক্ষতার পরিচয় দেওয়ায় এ প্রশিক্ষণের সুযোগ পেয়েছে।

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল পৌর শহরের আবুল কাশেম ও বানেসা বেগমের মেয়ে রানী। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে সে চতুর্থ। স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে পড়ে রানী। কিন্তু রানী ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল উপজেলা দলের হয়ে টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছিল। 

পর্তুগালে প্রশিক্ষণের সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত রানী বলে, ‘প্রশিক্ষণে ফুটবল সম্পর্কে শিখতে চাই অনেক কিছু।’ মেয়ের এমন সাফল্যে বাবা আবুল কাশেম বলেন, ‘মেয়ে পর্তুগালে যাওয়ার সুযোগ পাওয়ায় খুশি। কখন স্বপ্নও দেখিনি ফুটবল শিখতে মেয়ে বিদেশ যাবে।’ 

রাণীশংকৈল উপজেলার রাঙাটুঙ্গী ইউনাইটেড মহিলা ফুটবল একাডেমিতে অনুশীলন করত রানী। এরপর স্কুল পর্যায়ে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ফুটবল টুর্নামেন্টে দিয়েই শুরু। স্থানীয় এক ফুটবল একাডেমিটির পৃষ্ঠপোষক অধ্যক্ষ তাজুল ইসলাম বলেন, ‘অনূর্ধ্ব-১৭ জাতীয় চ্যাম্পিয়ন দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ১১ জন ছেলে ব্রাজিলে এবং ১১ জন মেয়ে পর্তুগালে ফুটবল প্রশিক্ষণ নিতে যাচ্ছে। সেরা এগারোর মধ্যে রানীও নির্বাচিত হয়েছে।’ 

জানা গেছে, রানীর সঙ্গে পর্তুগালে যাচ্ছে রংপুরের পালিচড়া গ্রামের নাসরিন, মৌরাশি, রেখা আক্তার, শাম্মি আক্তার, খাগড়াছড়ির সেনারি চাকমা, চুয়াডাঙ্গার বিদিশাসহ ১১ ফুটবলার।





Source link