নাঈমের সেই পুরোনো অপেক্ষা

24


১৫ মাসের বিরতি দিয়ে টেস্ট একাদশে ফিরেছিলেন নাঈম হাসান। ফেরাটাও হয় মনে রাখার মতো। চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে করেন ক্যারিয়ারসেরা বোলিং। কিন্তু চোটের কাছে হার মানতে হয় দ্বিতীয় ইনিংসে। সিরিজই শেষ হয়ে যায় আঙুলের চোটে।

চোটে পড়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও যাওয়া হচ্ছে না নাঈমের।  তবে চিকিৎসা ও বিশ্রামের পর এখন অনেকটাই সুস্থ তরুণ এ অফ স্পিনার। তবে অপেক্ষাটা দ্রুত ফুরোচ্ছে না তাঁর। এক সপ্তাহ পর বোলিংয়ে ফিরতে পারার কথা জানিয়েছেন তিনি নিজেই। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের নাঈম নিজের পুনর্বাসনপ্রক্রিয়া নিয়ে আজ বললেন, ‘এখন আগের চেয়ে অনেক ভালো। আরও সপ্তাহখানেক পর আবার দেখবে বলল। আশা করছি, ১২ বা ১৫ জুন বোলিং শুরু করতে পারব। এখন সাইক্লিং আর জিম করছি।’

এক চোটের পর ১৫ মাস দলের বাইরে ছিলেন নাঈম। দলে ফেরার পর আবার সঙ্গী হয়েছে চোট। তবে এতে ভেঙে পড়ছেন না নাঈম। একজন খেলোয়াড়ের জীবনের অংশ হিসেবে সহজভাবে মেনে নিচ্ছেন তিনি, ‘আসলে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। একজন খেলোয়াড়ের জীবনে উত্থান-পতন থাকবেই। যখন ফিরব, চেষ্টা করব তখন যেন আরও শক্তভাবে ফিরতে পারি। চোট তো আমার হাতেও ছিল না, কারও হাতেই ছিল না।’

চোট থেকে সেরে উঠলেও দলে জায়গা পাওয়ার কাজটা সহজ হবে না নাঈমের। শ্রীলঙ্কা সিরিজে দলে জায়গা হয়েছিল আরেক অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজের চোটে। চোট কাটিয়ে মিরাজ আবার দলে ফিরেছেন। নাঈম অবশ্য এসব নিয়ে মাথা ঘামাতে চান না। তাঁর কাছে সবার আগে পরিশ্রম করে নিজেকে তৈরি রাখা,  ‘এখন আমার হাতে আছে শুধু পরিশ্রম করে যাওয়া। চেষ্টা থাকে সব সময় নিজেকে তৈরি রাখার। যখনই সুযোগ আসবে, চেষ্টা থাকবে নিজের শতভাগ দেওয়ার। টিম ম্যানেজমেন্ট চাইলে আবার সুযোগ দেবে। আমার চেষ্টা থাকবে নিজের শতভাগ দেওয়ার।’





Source link