নতুন চ্যাম্পিয়নকে উদ্‌যাপন করা শেখাতে চান আরব কন্যা জাবেউর

30


উইম্বলডন শুরুর আগে আলোচনাতেই ছিলেন না কাজাখস্তানের এলেনা রাইবানিকা। আলোচনার বাইরে থেকে এসে বাজিমাত করেছেন এই টেনিস তারকা। প্রথমবারের মতো জিতে নিয়েছেন গ্র্যান্ড স্লাম শিরোপা। উইম্বলডন ফাইনালে তিউনিসিয়ার ওনস জাবেউরকে ৩-৬,৬-২ ও ৬-২ গেমে হারিয়েছেন রাইবানিকা। 

অপ্রত্যাশিত চ্যাম্পিয়ন রাইবানিকার উদ্‌যাপন অবশ্য ছিল আরও বেশি অপ্রত্যাশিত। আবেগে ভেসে যাওয়া বা উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ার মতো কিছুই করে দেখাননি। সাধারণ একটি জয়ের পর একজন খেলোয়াড় যা করেন শুধু সেসবই করেছেন তিনি। 

ঐতিহাসিক জয়ের পর হাসি মুখে প্রতিপক্ষের সঙ্গে হাত মেলালেন এবং তারপর সাদামাটাভাবে দর্শক অভিবাদনের জবাব দিয়েছেন রাইবানিকা। প্রতিপক্ষের এমন উদ্‌যাপন বিস্মিত করেছে রানার্সআপ জাবেউরকেও। ম্যাচ শেষে বলেছেন, রাইবানিকাকে উদ্‌যাপন করা শেখাতে চান তিনি। 

রাইবানিকার উদ্‌যাপন নিয়ে জানতে চাইলে জাবেউর বলেছেন, ‘সম্ভবত সে লাজুক এবং নিজেকে মেলে ধরতে চায় না। আমার মনে হয়, তার খেলা তার হয়ে কথা বলবে। এলেনার (রাইবানিকা) সঙ্গে খেলতে ভালো লাগে। এমনকি আপনি যখন তার বিপক্ষে হেরে যান, তখনো তাকে উদ্‌যাপন করতে বা অন্য কিছু করতে দেখবেন না।’ এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘আমার তাকে শেখাতে হবে কীভাবে উদ্‌যাপন করতে হয়। 
 
ম্যাচ শেষে রাইবানিকাকেও কথা বলতে হয় নিজের উদ্‌যাপন নিয়ে। সাদামাটা উদ্‌যাপনের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন, ‘হয়তো কোনো একদিন আপনারা আমার অনেক প্রতিক্রিয়া দেখবেন। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে আজকে না। আমি জানতাম না কি করতে হতো! আমি স্তব্ধ হয়ে পড়েছিলাম। অনেক বেশি আবেগাপ্লুত ছিলাম। চেষ্টা করেছিলাম নিজেকে শান্ত রাখতে। কোর্টে কথা বলার সময় মনে হচ্ছিল, এখনই কাঁদব। কোনোভাবে আটকেছি। হয়তো পরে যখন ঘরে একা থাকব অনেক কাঁদব। আমি আসলে জানি না।’





Source link