টেনিসের ‘ব্যাড বয়’ কি আর ভালো হবেন না

44


টেনিসের ‘ব্যাড বয়’ নিক কিরগিওস। উইম্বলডনে নিজের প্রথম ম্যাচেই বিতর্কিত এক ঘটনায় বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে নয় লাখ টাকার জরিমানা গুনতে হয়েছে তাঁকে।

গত সপ্তাহে টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডে কিরগিওস এক দর্শককে থুতু মেরেছেন। তিনি দাবি করেছেন, ম্যাচ চলাকালীন দর্শকটি তাঁকে উত্ত্যক্ত করেছিল। পরে বিরক্ত হয়ে তার দিকে থুতু ছোড়েন। পরে তিনি এটি স্বীকার করে ক্ষমাও চেয়েছেন। ব্রিটেনের পল জাবেরের বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয়ের পর অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড় বলেছেন,‘ ম্যাচ শেষে সেই দর্শকের দিকে তাকিয়েছিলাম। তিনি আমার উদ্দেশে অপমানজনক কথা বলেছিলেন। তার প্রতি কোনো ঘৃণা নেই।’

কিরগিওস সমর্থকদের নিয়েও কথা বলেছেন। ২৭ বছর বয়সী খেলোয়াড় বলেছেন,‘ সাধারণত দর্শকদের কোনো কিছু বলি না, যতক্ষণ না তারা কোনো কিছু বলে। এসব লোকদের থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করি। অনেকেই আমাকে অসম্মান ও অপমান করে কথা বলে। তবে নিজের সমর্থকের সঙ্গে এমন কিছু করব না।’

ঘটনার দিনে ক্ষমা চেয়েও কিরগিওস জরিমানা এড়িয়ে যেতে পারলেন না। উইম্বলডন কর্তৃপক্ষ তাঁকে সাড়ে নয় লাখ টাকা জরিমানা করে। চলতি টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত এটিই সবচেয়ে বড় আর্থিক শাস্তি।

নিক কিরগিওসের বিরুদ্ধে অখেলোয়াড় সুলভ আচরণের অভিযোগ এবারেই প্রথম নয়। তিনি আগেও বহুবার কোর্টে এমন আচরণ করেছেন। পেশাদার টেনিস কর্তৃপক্ষ (এটিপি) তাঁকে শাস্তি হিসেবে বিশাল অঙ্কের জরিমানাসহ নিষিদ্ধও করেছিল। তিনি ২০১৯ সালের সিনসিনাটি মাস্টার্সে আম্পায়ারের সঙ্গে ঝামেলা করে প্রায় এক কোটি টাকা জরিমানা দিয়েছেন। এর আগে ২০১৫ সালে স্তানিসলাস ভাভারিঙ্কার প্রেমিকাকে নিয়ে স্পর্শকাতর মন্তব্য করেছিলেন। ভালো হওয়ার সুযোগ দেওয়ার পরও নিজেকে বদলাননি। এখন তাই প্রশ্ন জাগে, টেনিসের ‘ব্যাড বয়’ কি আর কখনোই ভালো হবেন না!





Source link