ওয়াকারের বিরুদ্ধে বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ রমিজের

17


ওয়াকার ইউনিসের বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ যেন থামছেই না। কিছুদিন আগে আহমেদ শেহজাদ অভিযোগ করেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়কের বিরুদ্ধে। এবার রমিজ রাজা জুনিয়রের অভিযোগ, প্রধান কোচ থাকাকালীন পাঞ্জাব ও করাচির খেলোয়াড়দের মধ্য বৈষম্য করতেন সাবেক এই কিংবদন্তি ফাস্ট বোলার। 

পাকিস্তান জাতীয় দলের হয়ে দুইটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন রমিজ। ২০১১ সালে তিনি একমাত্র আন্তর্জাতিক সফর করেছিলেন জিম্বাবুয়েতে। সে সফরে তিনি ওয়াকারের কাছে রূঢ় আচরণ পেয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন। রমিজ স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘করাচির বাসিন্দা হওয়াতে তিনি আমাকে কটূক্তি করেছিলেন। সফরটি আমার কাছে ভয়ংকর হয়ে উঠেছিল। ফলে বাড়ি ফিরে যেতে চেয়েছিলাম।’ 

রমিজকে দলে জায়গা ধরে রাখতে পাঞ্জাবি ভাষা শিখতে বলেছিলেন ওয়াকার। এ বিষয়ে রমিজ বলেছেন, ‘তিনি আমাকে দলে জায়গা ধরে রাখতে পাঞ্জাবি ভাষা শিখতে বলেছিলেন। তারা সভায় এ ভাষাই ব্যবহার করতেন। পাঞ্জাবি ভাষা বলতে না পারায় তিনি আমাকে পেসার সোহেল খানের সঙ্গে অনুশীলনও করতে দেননি। উল্টো আমাকে বলেছেন এটা করাচি দল না।’ 

শেহজাদের অভিযোগ ছিল ওয়াকার তাঁর ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দিয়েছেন। কিংবদন্তি পেসার কোচ থাকাকালীন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে (পিসিবি) তাঁর নামে মিথ্যা প্রতিবেদন দিয়েছিলেন।





Source link