এটা আমার জন্য ভীষণ মায়াবী রাত 

42


টেনিস জগতের বহু কাঙ্ক্ষিত দ্বৈরথ হয়ে গেল গত রাতে। ফ্রেঞ্চ ওপেনের কোর্ট বলে রাফায়েল নাদালেরই এগিয়ে থাকার কথা। কিন্তু খেলাটা রাতে হওয়ায় ফেবারিট হিসেবে উচ্চারিত হচ্ছিল নোভাক জোকোভিচের নাম। খোদ নাদালও এই সময়ে খেলতে রাজি ছিলেন না! কিন্তু লাল দুর্গের রাজা দেখিয়ে দিলেন, আগ্রাসন আর দৃঢ় সংকল্প থাকলে যে কোনো বাধা উতরে যাওয়া যায়।

রোলাঁ গারোয় রোমাঞ্চকর কোয়ার্টার ফাইনালে জোকোভিচকে ৬-২,৪-৬, ৬-২,৭-৬ গেমে হারিয়েছেন নাদাল। শুক্রবার ফাইনালে ওঠার পথে স্প্যানিশ মহাতারকার বাধা জার্মানির আলেক্সান্ডার জভেরেভ।

সোয়া ৪ ঘণ্টার ‘ম্যারাথন’ লড়াইয়ের ফল দেখলেই বুঝতে পারার কথা। জোকোভিচ ছেড়ে কথা বলেননি। প্রথম সেটটা নাদাল জিতলেও র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা ঘুরে দাঁড়ান পরের সেটে। অথচ এই সেটে এক সময় নাদাল এগিয়ে ছিলেন।

ম্যারাথন লড়াই শেষে জোকোভিচের সঙ্গে করমর্দন করছেন নাদাল। ছবি: টুইটার

৬-৪ গেমে হারের পর রাতের ‘কমজোরি’র ব্যাপারটি শঙ্কা হয়ে উঁকি দিতে থাকে। কিন্তু নাদাল তৃতীয় সেটের পর সব শঙ্কা উড়িয়ে ১৪ তম ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ের পথে আরও একধাপ এগিয়ে নেন নিজেকে।

জয়টা আবার নাদালের জন্য মধুর প্রতিশোধও। গত বছর এই জোকোভিচের কাছে শেষ চারে হেরে বিদায় নিতে হয়েছিল।

তবে অতীত ভুলে ৩৫ বছর বয়সী স্প্যানিয়ার্ড শুধু সামনে আনলেন গত রাতের ধ্রুপদি লড়াইকে, ‘জোকোকে হারানোর উপায় একটিই—শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত নিজের সবটুকু নিংড়ে দিয়ে লড়ে যাওয়া। এমন লড়াইয়ের পর রাতটা আমার কাছে ভীষণ মায়াবী লাগছে। খুব আবেগঘনও।’





Source link