১৫ দিন সিঙ্গাপুরে থাকতে পারবেন গোতাবায়া

6


নিজ দেশ থেকে প্রথমে মালদ্বীপে, তারপর সিঙ্গাপুরে পালিয়ে যান শ্রীলঙ্কার সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে। তিনি খুব বেশি দিন সিঙ্গাপুরে থাকতে পারবেন না। তাঁকে ১৫ দিন অবস্থানের অনুমতি দিয়েছে সিঙ্গাপুর সরকার। নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন-নিউজ ১৮। 

সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গোতাবায়া রাজাপক্ষের ১৫ দিন সিঙ্গাপুরে থাকার অনুমতি রয়েছে। এই সময়সীমা বাড়ানোর সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। 

আগামী ১৫ দিন গোতাবায়ার পরিকল্পনা কী, তা স্পষ্ট নয়। তবে সূত্রটি (সিএনএন-নিউজ ১৮ যার নাম প্রকাশ করেনি) বলেছে, গোতাবায়া ভারত সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন, কিন্তু ভারত তাঁর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছে। শ্রীলঙ্কার জনগণের বিরোধী কোনো সিদ্ধান্ত ভারত নিতে চায় না। 

নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকট, বিদ্যুৎবিভ্রাট, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিসহ নানা কারণে গত কয়েক মাস ধরে গণবিক্ষোভ চলছে শ্রীলঙ্কায়। এক সপ্তাহ আগে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী গোতাবায়া রাজাপক্ষের রাজপ্রাসাদ ও কার্যালয় দখল করেন। বিক্ষোভের মুখে গত মঙ্গলবার রাতে ৭৫ বছর বয়সী গোতাবায়া রাজাপক্ষে প্রথমে মালদ্বীপ ও পরে সিঙ্গাপুরে পালিয়ে যান। 

সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেছেন, ‘গোতাবায়াকে ‘‘একটি ব্যক্তিগত সফরে’’ সিঙ্গাপুরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তিনি সিঙ্গাপুরে বসবাসের জন্য আশ্রয় চাননি। সিঙ্গাপুর আশ্রয়ের জন্য অনুরোধ মঞ্জুর করে না।’ 

সিঙ্গাপুরে পৌঁছার পর গোতাবায়া রাজাপক্ষে ই-মেইলে শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টের স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র পাঠান। গতকাল শুক্রবার স্পিকার মাহিন্দা ইয়াপা আবেবর্ধনে তাঁর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে আনুষ্ঠানিকভাবে গোতাবায়ার পদত্যাগ ঘোষণা করেন। 

গোতাবায়ার আনুষ্ঠানিক পদত্যাগের পর গতকালই শ্রীলঙ্কার অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন রনিল বিক্রমাসিংহে। স্থানীয় সময় শুক্রবার তিনি শ্রীলঙ্কার প্রধান বিচারপতি জয়ন্ত জয়সুরিয়ার কাছে শপথ নিয়েছেন। পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত তিনি অন্তর্বর্তীকালীন হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। 

স্পিকার মাহিন্দা ইয়াপা আবেবর্ধনে বলেছেন, আগামী সাত দিনের মধ্যে শ্রীলঙ্কা একজন নতুন প্রেসিডেন্ট পাবে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সম্ভাব্য তারিখ হিসেবে তিনি ২০ জুলাইয়ের কথা বলেছেন। 





Source link