হায়দারাবাদে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত আইনপ্রণেতার ছেলে

38


ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যের রাজধানী হায়দারাবাদে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের রাজ্যের এক আইনপ্রণেতার ছেলের নাম নাম উঠে এসেছে। ওই আইনপ্রণেতা ভারতের রাজনীতিতে বিখ্যাত নাম আসাদুদ্দিন ওয়াইসির দল অল ইন্ডিয়া মজলিশ–ই–ইত্তেহাদুল মুসলেমিনের সদস্য। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত অভিযুক্ত ৬ জনের মধ্যে ৫ জনই নাবালক। তাদের সবাইকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে। এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অভিযুক্তদের মধ্যে পাঁচজনই নাবালক হওয়ায় তাদের ভারতীয় দণ্ডবিধি পিওসিএসও অ্যাক্টের আওতায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। পিওসিএসও অ্যাক্ট ছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে শালীনতা হরণ এবং সহিংস হামলার অভিযোগও আনা হয়েছে। 

এর আগে, গত সপ্তাহে, বিজেপির আইনপ্রণেতা রঘুনন্দন রাও একটি ভিডিও ক্লিপ এবং বেশ কিছু ছবি প্রকাশ করেছিলেন যেখানে ওই কিশোরী এবং তার ওপর আক্রমণকারীদের দেখা যাচ্ছিল। সে সময় রঘুনন্দন অভিযোগ করেন—ওই সময় একটি গাড়িতে ওই কিশোরীর সঙ্গে একজন আইনপ্রণেতার ছেলেও উপস্থিত ছিলেন। তিনি আরও অভিযোগ করেন, পুলিশ বিষয়টি ধামাচাপা দিতে চাইছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রথম দিকে পুলিশ বলছিল যে, ওই সময় ওই আইনপ্রণেতার ছেলে গাড়িতে ছিল না। পরে পুলিশ জানায় যে—ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। 

এর আগে, ওই কিশোরী একটি পাব থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময় একটি গাড়ির ভেতরে একদল স্কুল পড়ুয়া কিশোরের আক্রমণের শিকার হয়। তাদের মধ্যে একজন ওই কিশোরীকে তাদের সঙ্গে যেতে বলে। ঘটনাটি হায়দারাবাদের জুবিলি হিলস এলাকায় সংঘটিত হয়। 

ভাইরাল হওয়া এক সিসিটিভি ফুটেজ থেকে দেখা গেছে, ওই কিশোরী একটি পাবের বাইরে অভিযুক্তদের সঙ্গে অপেক্ষা করছে। 

অভিযুক্তদের অধিকাংশই একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। 





Source link