হবু বরকে জেলে ভরা সেই পুলিশ কর্মকর্তাই এবার দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেপ্তার

47


ভারতের আসাম রাজ্যের পুলিশ কর্মকর্তা জুনমনি রাভা গত মাসে প্রতারণার অভিযোগে নিজের হবু বরকে গ্রেপ্তার করে আলোচনায় এসেছিলেন। এবার সেই বাগদত্তার সঙ্গেই দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

আসামের নগাঁও জেলার সাব-ইন্সপেক্টর জুনমনি রাভা। টানা দুই দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর শনিবার (৪ জুন) তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাজুলি জেলার একটি আদালত তাঁকে ১৪ দিনের বিচার বিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়েছেন। 

দুই ঠিকাদার পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন, জুনমনি রাভার প্রাক্তন রানা পোগাগের সঙ্গে তাঁরা আর্থিক চুক্তি করেছিলেন। জুনমনি তখন মাজুলিতে কর্মরত। জুনমনিই তাঁদের সঙ্গে রানা পোগাগের পরিচয় করিয়ে দেন। ঠিকাদারদের অভিযোগ, তাঁরা প্রতারিত হয়েছেন। 

এর আগে জুনমনি রাভা পোগাগের বিরুদ্ধে এফআইআর করেছিলেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, অয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস করপোরেশন লিমিটেডে (ওএনজিসি) চাকরি পাইয়ে দেওয়ার জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারণা করেছেন। জুনমনি নিজেই তাঁকে গ্রেপ্তার করেন। পোগাগ এখন মাজুলি জেলে রয়েছেন। 

এই ঘটনার পর বলিউড সিনেমার ‘লেডি সিঙ্ঘাম’ বা ‘দাবাং কপ’ নামে আখ্যা পান জুনমনি। তাঁর বিরুদ্ধে এখন অভিযোগ উঠেছে, সাবেক বাগদত্তা রানা পোগাগ তাঁর হয়ে লোকজনের সঙ্গে প্রতারণা ও চাঁদাবাজি করতেন। এই অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। জুনমনিকেও মাজুলি জেলা কারাগারে রাখা হয়েছে। 

গত বছরের অক্টোবরে রানা পোগাগের সঙ্গে জুনমনির বাগদান হয়। এ বছরের নভেম্বরে তাঁদের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। 

এ বছরের জানুয়ারিতে একটি বিতর্কিত ঘটনায় রাভা জুনমনির নাম আসে। বিহপুরিয়ার বিধায়ক অমিয় কুমার ভূঁইয়ার সঙ্গে তাঁর একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়। নির্বাচনী এলাকার জনগণকে হয়রানি করার অভিযোগ করেন বিধায়ক। এ নিয়ে ফোনেই বিধায়কের সঙ্গে তর্কে জড়ান জুনমনি। অবশ্য যারা হয়রানির স্বীকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করা হয় তাঁরা সবাই বিজেপি কর্মী বলে জানা যায়। 

ফাঁস হওয়া অডিওটি রাজ্য বিজেপির মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দেয়। বিজেপি শাসিত আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমান্ত বিশ্ব শর্মা তখন বলেছিলেন, একজন নির্বাচিত প্রতিনিধিকে অবশ্যই যথাযথ সম্মান দিতে হবে। 





Source link