সিরিয়ার উপকূল থেকে ১৫ অভিবাসন প্রত্যাশীর মরদেহ উদ্ধার 

15


সিরিয়ার উপকূল থেকে ১৫ অভিবাসন প্রত্যাশীর মরদেহ উদ্ধার করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এ সময় আরও ৮ জনকে জীবিত অবস্থায় সিরিয়ার তারতৌস শহরের উপকূল থেকে উদ্ধার করা হয়। জীবিতরা জানিয়েছেন, তাঁরা লেবানন থেকে রওনা হয়েছিলেন।

সিরিয়ার সরকারপন্থী সংবাদমাধ্যম আল–ওয়াতানের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। জীবিতরা জানিয়েছেন, তাঁরা লেবাননের মিনিয়েহ শহর থেকে কয়েক দিন আগে রওনা হয়েছিলেন।

বর্তমানে লেবানন দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটের মুখোমুখি। এর আগে সর্বশেষ ১৮৫০ এর দশকে দেশটি এমন ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটে পতিত হয়েছিল। এই সংকট কাটাতেই অনেকেই লেবানন ছাড়ছেন। বিশেষ করে যুদ্ধের কারণে যেসব সিরিয়ান লেবাননে আশ্রয় নিয়েছিলেন তাঁরা এখন আবারও দেশে ফেরার চেষ্টা করছেন। এ ছাড়া ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুরাও লেবানন ছাড়ছেন।

গত বুধবার লেবাননের সেনাবাহিনী জানিয়েছিল, তাঁরা একটি নৌকা থেকে অভিবাসন প্রত্যাশী অন্তত ৫৫ জনকে উদ্ধার করেছে। তাঁরা ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপের কোনো দেশে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু গন্তব্যে পৌঁছার পরিবর্তে আবারও লেবাননের উপকূলেই চলে আসে।

গত এপ্রিলে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির কাছ থেকে যাত্রা করা একটি অভিবাসী বহনকারী নৌকা লেবাননের নৌবাহিনীর বাধার মুখে দেশটির উপকূলে ডুবে যায়। সেই নৌকায় অন্তত ৮০ জন লেবাননিজ, সিরিয়ার এবং ফিলিস্তিনি অভিবাসী ছিলেন। যাদের মধ্যে প্রায় ৪০ জনকে উদ্ধার করা হয় এবং ৭ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়। বাকি ৩০ জনের খোঁজ আর মেলেনি।





Source link