রেল স্টেশনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ২ শতাধিক ইউক্রেনীয় সৈন্য নিহত: রাশিয়া

23


ইউক্রেনের একটি রেলস্টেশনে রাশিয়ার সেনাবাহিনীর আক্রমণে ২ শতাধিক ইউক্রেনীয় সৈন্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে রাশিয়া। তবে, রাশিয়ার এই দাবির বিপরীতে ইউক্রেন বলেছে, এই আক্রমণে মাত্র ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে শিশুও রয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা হয়েছে। 

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নিয়মিত এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছে, ‘দিনিপ্রোপেত্রোভস্ক শাপলাইন রেলওয়ে স্টেশনে সরাসরি ইস্কান্দার ক্ষেপণাস্ত্রের হামলায় ইউক্রেন সেনাবাহিনীর রিজার্ভ ফোর্সের ২০০ এরও বেশি সৈন্য নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া ১০ ইউনিট সামরিক সরঞ্জামও ধ্বংস হয়েছে।’ 

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ওই ট্রেনটি মস্কো নিয়ন্ত্রিত ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের দনবাসের দিকে অগ্রসর হচ্ছিল। 

এদিকে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক চলার সময় রাশিয়া এ হামলা চালিয়েছে। এতে অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছেন। জেলেনস্কি বলেছেন, তিনি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বক্তব্য দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তখন দিনিপ্রোপেত্রোভস্ক অঞ্চলের চ্যাপলিনে হামলার কথা জানতে পারেন। রাশিয়া এভাবেই নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে যোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘হামলার কারণে চারটি যাত্রীবাহী গাড়িতে আগুন লেগেছে। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।’ 

গত এপ্রিলে ইউক্রেনের অন্য একটি রেল স্টেশনে হামলা চালিয়েছিল রুশ বাহিনী। সেই হামলায় ৫০ জন নিহত হয়েছিলেন। এর আগে মস্কো প্রতিবারই বলেছে, কোনো বেসামরিক অবকাঠামো লক্ষ্য করে রাশিয়া হামলা চালায় না। 

গতকাল বুধবার ছিল ইউক্রেনের স্বাধীনতা দিবস। এ দিবসকে ঘিরে রাশিয়া ‘নৃশংস কিছু’ করতে পারে বলে আগেই মন্তব্য করেছিলেন জেলেনস্কি। হামলার আশঙ্কায় বড় ধরনের উদ্যাপন অনুষ্ঠান ও সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছিল ইউক্রেন। তার পরও রুশ হামলা থেকে রেহাই পেল না ইউক্রেনের মানুষ। 





Source link