যুক্তরাষ্ট্রে ভেড়ার খামারিদের বিরুদ্ধে রাখালদের মামলা

39


খামার মালিকেরা পরিকল্পিতভাবে মজুরি কম দিয়ে শোষণ করছেন—এমন অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের নেভাদা অঙ্গরাজ্যে ভেড়ার খামারের রাখালেরা মালিকদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

গত বুধবার রাখালেরা আদালতে মামলা করেন। তাঁদের অভিযোগ, নিয়োগকর্তারা একটি সংঘবদ্ধ মাফিয়ার মতো আচরণ করছে। তারা জোটবদ্ধ হয়ে রাখালদের মজুরি কমিয়েছে। 

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, রাখালদের মজুরি কম রাখতে এবং শ্রমবাজারে প্রতিযোগিতা এড়াতে ওয়েস্টার্ন রেঞ্জ অ্যাসোসিয়েশন (ডব্লিউআরএ) নামে একটি বাণিজ্যিক পশুপালন গোষ্ঠী সমন্বিতভাবে কাজ করে। 

রাখালেরা ডব্লিউআরএর মাধ্যমে চাকরির জন্য আবেদন করেন। পরে তাদের বিভিন্ন খামারে নিয়োগ দেওয়া হয়। এখানে পছন্দমতো খামার বেছে নেওয়া বা মজুরি নিয়ে আলোচনার সুযোগ থাকে না। 

এই ব্যবস্থাটি যুক্তরাষ্ট্রের শেরম্যান আইনে লঙ্ঘন। ১৩০ বছরের পুরোনো এই অ্যান্টি ট্রাস্ট আইন নিয়োগকারীদের মধ্যে মজুরি-নির্ধারণ চুক্তিকে নিষিদ্ধ করেছে। 

এই অভিযোগের বিষয়ে ডব্লিউআরএর জেনারেল কাউন্সেল এলেন জিন উইনোগ্রাড বলেছেন, মামলার অভিযোগগুলোর মধ্যে ‘আমল যোগ্যতার অভাব রয়েছে বলে মনে হচ্ছে’। তবে এ ব্যাপারে তারা বিস্তারিত কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। 

যুক্তরাষ্ট্রে ভেড়ার রাখালেরা সাধারণ লাতিন আমেরিকার দেশ পেরুর গ্রামীণ এলাকার পুরুষ। তাঁরা কৃষি এইচ-১এ ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে আসেন এবং বিচ্ছিন্ন এলাকায় বসবাস করেন। অভিযোগে বলা হয়েছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অন্যান্য কৃষি শ্রমিকের বেতন বৃদ্ধি হলেও তাঁদের মজুরির কোনো পরিবর্তন হয়নি। 

একই ধরনের একটি মামলা ২০১৭ সালে মার্কিন আদালতের আপিল বিভাগে খারিজ হয়ে গিয়েছিল। 

কৃষি বিভাগের তথ্য অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ১ লাখ ভেড়ার খামার রয়েছে। ভেড়া, ভেড়া বাচ্চা এবং পশম বিক্রি থেকে বছরে আয় হয় প্রায় ৭৫০ মিলিয়ন ডলার।





Source link