ব্যক্তিগত গাড়িতে জ্বালানি তেল বিক্রি বন্ধের ঘোষণা শ্রীলঙ্কা সরকারের

35


প্রয়োজন ছাড়া সব ধরনের ডিজেল বিক্রি বন্ধ ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা সরকার। এই ঘোষণা অনুসারে আগামী দুই সপ্তাহ দেশটিতে যে সব যানবাহনে পেট্রল না নিলেও চলবে সেগুলোর জন্য পেট্রল বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কেবল বাস, ট্রেন এবং জরুরি ওষুধ এবং খাদ্য সরবরাহে নিয়োজিত গাড়িতে পেট্রল বিক্রি করা যাবে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৭০ এর দশকের তেল সংকটের পর শ্রীলঙ্কাই প্রথম দেশ যা জ্বালানি তেল ব্যবহারে এমন নিষেধাজ্ঞা দিল। সেই সময়ে ইউরোপ–আমেরিকায় তেলের ব্যবহার কমানোর পাশাপাশি যানবাহনের গতির ঊর্ধ্ব গতিসীমাও নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল। 

দেশটির সরকারের মুখপাত্র বান্দুলা গুনাওয়ারদেনা জানিয়েছেন, শুধু ট্রেন, বাস, চিকিৎসা পরিষেবা ও খাদ্য পরিবহনকারী যানবাহনে জ্বালানি দেওয়া হবে। এ ছাড়া অন্য পরিবহনে জ্বালানি দেওয়া হবে না। আজ মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়ে আগামী ১০ জুলাই পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা চলবে।

এর আগে, গত সোমবার শ্রীলঙ্কার সরকার ঘোষণা দিয়েছিল আগামী ১০ জুলাই পর্যন্ত কোনো ব্যক্তিগত যানবাহনে জ্বালানি তেল বিক্রি করা যাবে না। তবে দেশটির বিপুলসংখ্যক নাগরিক ব্যক্তিগত যানবাহন চালিয়ে তাদের জীবিকা অর্জন করে থাকেন। এ অবস্থায় তাঁরা কীভাবে কী করবে তা ভেবে পাচ্ছেন না। 

তবে সরকারের এমন ঘোষণার পর দেশটির জনসাধারণ বুঝে উঠতে পারছেন না তাঁরা কীভাবে তাদের জন্য প্রয়োজনীয় জ্বালানি তেলের চাহিদা পূরণ করবেন। 





Source link