বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে চাঁদ দখলের অভিযোগ নাসার, অস্বীকার চীনের

12


চীনের বিরুদ্ধে সামরিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে চাঁদ দখলের চেষ্টা চালানোর অভিযোগ তুলেছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা–নাসার প্রধান। তবে চীন এই ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করে এর তীব্র সমালোচনা করেছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল–জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান গত সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, চীন দৃঢ়ভাবে নাসা প্রধান বিল নেলসনের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাচ্ছে। এবং বিল নেলসনের ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্যের’ বিরোধিতা করছে।

এর আগে, নাসা প্রধান বিল নেলসন বলেছিলেন যে, তিনি চীনের মহাকাশ বিষয়ে উচ্চাকাঙ্ক্ষা নিয়ে উদ্বিগ্ন। তিনি বলেছেন—‘আমাদের এই বিষয়ে সতর্ক হতে হবে যে, চীন যেকোনো সময় চাঁদে পাড়ি জামাতে পারে এবং বলতে পারে যে, এটি আমাদের। তোমরা এখান থেকে চলে যাও।’

এদিকে, বেশ কয়েক দিন আগে চীনের নিজস্ব মহাকাশ স্টেশন তিয়ানগংয়ের কাজ সমাপ্ত করতে নতুন মহাকাশ মিশন পাঠিয়েছে দেশটি। এ যাত্রায় চীনের নিজস্ব মহাকাশ স্টেশনের সর্বশেষ মডিউল পাঠানো হয়েছে। তিন নভোচারীসহ গতকাল রোববার চীনা মহাকাশযান শেনঝু–১৪ মডিউল নিয়ে তিয়ানগংয়ের উদ্দেশে রওনা করেছে।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শেনঝু–১৪ তে করে যাওয়া ওই তিন মহাকাশচারী আগামী ছয় মাস ওই মহাকাশ স্টেশনে থাকবেন। এই সময়ের মধ্যে ওই তিন মহাকাশচারী তিয়ানগংয়ের মূল অংশ তিয়ানহে–যেখানে মহাকাশচারীরা থাকেন–সেখানে নতুন এই মডিউলে থাকা দুটি আলাদা গবেষণাগার সংযুক্ত করবেন। উল্লেখ্য, চীন ২০২১ সালে তিয়ানগং মহাকাশ স্টেশনটি চালু করে।





Source link