বকেয়া বেতনের জন্য প্রতিবাদ করায় অভিবাসী শ্রমিকদের ফেরত পাঠাচ্ছে কাতার

23


মজুরি নিয়ে প্রতিবাদ করা অভিবাসী শ্রমিকদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার। এ ছাড়া বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, গত ১৪ আগস্ট দেশটির আল বান্দারি ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপের দোহা অফিসের সামনে অন্তত ৬০ জন অভিবাসী শ্রমিক বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ করেন। প্রতিবাদ করা কিছু শ্রমিককে আটক ও কয়েকজনকে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। তবে ঠিক কতজনকে পাঠানো হচ্ছে তা জানা যায়নি।

আগামী নভেম্বরে কাতারে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপ। এই আয়োজনকে ঘিরে নির্মাণ করা হয়েছে স্টেডিয়ামসহ বিভিন্ন অবকাঠামো। আর এতে কাজ করা অভিবাসী শ্রমিকদের জোটেনি ন্যায্য পাওনা। ফলে কিছু শ্রমিক পাওনার দাবিতে দেশটিতে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভে নেপাল, বাংলাদেশ, ভারত, মিশর এবং ফিলিপাইনের শ্রমিকেরা অংশ নেয়।

এ বিষয়ে কাতার সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, দেশটির জননিরাপত্তা আইন ভঙ্গ করার দায়ে এসব অভিবাসী শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কারণ বিক্ষোভ দেখানোর সময় তারা শান্তিপূর্ণ আচরণ করেনি। ফলে তাদের পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

দেশটির সরকার আরও জানিয়েছে, যেসব অভিবাসী শ্রমিক তাদের মজুরি পাননি, তাদের পাওনা মজুরি দেওয়া হবে। আর অভিযুক্ত গ্রুপ আল বান্দারি ইন্টারন্যাশনালের বিরুদ্ধে আগে থেকেই তদন্ত করা হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে হিউম্যান রাইটস জানিয়েছিল, কাতারের অভিবাসী শ্রমিকেরা একটি শোষণমূলক শ্রম ব্যবস্থা দ্বারা পরিচালিত হয়। জোরপূর্বক আটকে রাখা, ন্যায্য মজুরি না দেওয়া, আবাসন সংকট, ব্যক্তি স্বাধীনতা না থাকাসহ বিভিন্ন প্রতিকূল পরিবেশে সেখানে অভিবাসী শ্রমিকেরা রয়েছে।





Source link