ঘুষ গ্রহণের অপরাধে ১২ বছরের জেল মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের

37


ঘুষ গ্রহণের অপরাধে ১২ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। সাজার মেয়াদ কাটাতে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। স্থানীয় সময় আজ মঙ্গলবার আদালত এই রায় দেন। সিঙ্গাপুরের সংবাদমাধ্যম স্ট্রেইট টাইমসের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহার্ড (এমডিবি) প্রকল্পের আওতায় একটি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে কয়েক মিলিয়ন ডলার ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে এর আগে ১২ বছর কারাদণ্ড দেয় মালয়েশিয়ার একটি আদালত। পরে সেই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন নাজিব রাজাক। সর্বশেষ মালয়েশিয়ার সর্বোচ্চ আদালত ফেডারেল কোর্ট তাঁর আপিল আবেদন খারিজ করে দিয়ে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

মালয়েশিয়ার সর্বোচ্চ আদালতের এই রায়ের ফলে, নাজিব রাজাককে এখন ১২ বছর মেয়াদে কারাবন্দী থাকতে হবে। নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে সর্বমোট ৭টি অভিযোগ আনা হয়েছিল। অভিযোগগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্যগুলো হলো—ক্ষমতার অপব্যবহার, অর্থ পাচার, এমডিবি প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত প্রতিষ্ঠানে জোরপূর্বক হস্তক্ষেপ। অভিযোগগুলো প্রমাণিত হওয়ায় ফেডারেল কোর্ট আগের শাস্তিই বহাল রাখে।

নাজিব রাজাকের পুত্রবধূ নূর শর্মিলা শাহীন বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ‘আমাদের বলা হয়েছে তাঁকে কাজাং কারাগারে নেওয়া হয়েছে।’

এর আগে, ২০২০ সালে ৬৯ বছর বয়সী নাজিবকে ১২ বছরের কারাদণ্ড এবং ২১০ মিলিয়ন মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত যা বাংলাদেশি টাকায় ৪৪৪ কোটি ৬২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এমডিবি প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত এসআরসি ইন্টারন্যাশনালের কাছ থেকে ৪২ মিলিয়ন মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত নিজের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে নেওয়ার অভিযোগে এই দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। 





Source link