এবার যুক্তরাষ্ট্রে হাসপাতালে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৪ 

28


যুক্তরাষ্ট্রে আবারও বন্দুকধারীর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এবার ওকলাহোমার টুলশা শহরের সেন্ট ফ্রান্সিস হাসপাতালের একটি ভবনে গতকাল বুধবার বন্দুকধারীর গুলিতে চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় পুলিশের গুলিতে বন্দুকধারীও নিহত হয়েছেন। পুলিশের একজন উপ-প্রধান কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন। 

ঘটনার পর টুলশা পুলিশের উপ-প্রধান এরিক ডাল্গলিশ সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, বন্দুকধারী স্ব-প্রণোদিত হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’ বন্দুকধারীর সম্পূর্ণ পরিচয় এখনো জানা যায়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি। এরিক ডাল্গলিশ বলেন, ‘বন্দুকধারীর সঙ্গে একটি রাইফেল ও একটি হ্যান্ডগান ছিল।’ 

এরিক ডাল্গলিশ আরও বলেন, ‘সেন্ট ফ্রান্সিস হাসপাতালের নাটালি মেডিকেল বিল্ডিংয়ের দ্বিতীয় তলায় এ ঘটনা ঘটেছে। হামলার সংবাদ পাওয়ামাত্র পুলিশ সেখানে পৌঁছেছে।’ 

টুলশা শহরের মেয়র জিটি বাইরাম পুলিশের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেন, ‘পুলিশ বিভাগের নারী ও পুরুষ কর্মকর্তারা খুব দ্রুত পদক্ষেপ নিয়েছেন। এই ক্যাম্পাসটি (নাটালি মেডিকেল সেন্টার) আমাদের সম্প্রদায়ের এক পবিত্র স্থান।’ 

এদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে রোগী ও হাসপাতালের কর্মচারী রয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে। 

এ ঘটনায় বিবৃতি প্রকাশ করেছে হোয়াইট হাউস। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, হামলার সংবাদ প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে জানানো হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে টুলমার স্থানীয় কর্মকর্তাদের সহায়তার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। 

বন্দুক হামলার ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রে নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের একটি স্কুলে বন্দুক হামলায় ১৯ জন শিক্ষার্থী ও দুজন শিক্ষক মারা যান। এর আগে গত ১৫ মে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের বাফেলোতে একটি সুপার মার্কেটে বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছেন। 





Source link