আলবেনিয়ায় নৌ ঘাঁটি করবে ন্যাটো 

37


আলবেনিয়ায় নৌ–ঘাঁটি করতে চায় আটলান্টিকের তীরের দেশগুলোর সামরিক জোট–ন্যাটো। এ লক্ষ্যে জোটটি আলবেনিয়ার নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। নৌ–ঘাঁটিটি তৈরি করা হবে অ্যাড্রিয়াটিক সাগর তীরবর্তী বন্দর নগরী পোর্তো রোমানোতে এই ঘাঁটিটি তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে। 

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যাড্রিয়াটিক সাগরের এই নির্মাণাধীন বন্দরের সঙ্গেই নৌ–ঘাঁটিটি নির্মাণ করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন আলবেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইদি রামা। গতকাল শুক্রবার তিনি এই তথ্য জানান। 

এক সংবাদ সম্মেলনে ইদি রামা বলেন, ‘সমুদ্র তীরবর্তী শহর দুরেসের নিকটবর্তী পোর্তো রোমানোতে দেশের সবচেয়ে বড় বন্দর নির্মাণ করা হচ্ছে। সেটি একই সঙ্গে বাণিজ্যিক বন্দরের পাশাপাশি একটি সামরিক নৌ–ঘাঁটি হিসেবেও ব্যবহৃত হতে পারে।’ 

ইদি রামা জানিয়েছেন, এই নৌ–ঘাঁটি তৈরি করতে ন্যাটো অর্থ সহায়তা দিতে পারে। তিনি বলেছেন, ‘আমরা শিগগিরই ব্রাসেলসে ফিরে দুরেসে ন্যাটোর নৌ–ঘাঁটি স্থাপনের বিষয়ে আলোচনা চালাব।’ 

এর আগে, গত মে মাসে রামা জানিয়েছিলেন, তাঁর সরকার আলবেনিয়ার রাজধানী তিরানা থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণের শহর পাশালিমানে নৌ–ঘাঁটি স্থাপনে ন্যাটোকে অনুরোধ জানিয়েছে। অ্যাড্রিয়াটিক এবং আয়োনিয়ান সাগরের সংযোগস্থলে অবস্থিত ও শহরটিতে ১৯৫০ এর দশকে রাশিয়াই সর্বপ্রথম সাবমেরিন ঘাঁটি নির্মাণ করে। পরে অবশ্য ন্যাটো আলবেনিয়ার ওই প্রস্তাব গ্রহণ করেনি। 

উল্লেখ্য, আলবেনিয়া ২০০৯ সালে ন্যাটোর সদস্য হয়।





Source link